Thursday, January 4, 2018

দস্যুবর্গের এক অপ্রতিম সুবিধা আছে-
লক্ষ্যর প্রতি নিপট অধ্যবসায়ের ফলে
প্রকৃতপক্ষে আবেগ বিনিয়োগ করে না।
এর ফলে, অনেক সত্য, মাধুর্য্য, সৃষ্টি, প্রকৃতি, প্রণয়
ইত্যাদি হইতে ইহারা সহজে বঞ্চিত থাকে।

সুসভ্য আবেগশীলেরা এইরূপ বঞ্চনা হইতে মুক্ত
প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের কদর করিতে তাহাদের পরিশ্রম করিতে হয় না 
অনায়াসে ছদ্মবেশী জীব, রঙ্গীন কীট ইত্যাদিতে তাহারা মত্ত হয়,
লক্ষ্য অথবা আত্মপরতা অন্যতম ধারা না হওয়ায়
এমত অবিরত আনন্দ-উৎসবের ছিপি থাকে না তাহাদের।

লক্ষ্য, আত্মপরতা, ফসকান ইত্যাদি সবই- তথা আপেক্ষিক। ন্যায্য।
এবং এই দুই বর্গের অস্তিত্ব চিরন্তন।

 
তবুও কি আশ্চর্য্য দ্যাখো-
খরা, বর্ষা, ফসলে কীট ইত্যাদি সমস্ত থাকা স্বত্বেও 
নবান্ন প্রতি বৎসর আসে,
অথবা অতীতের সুরক্ষিত ফসলে উদযাপিত হয়।

No comments:

Post a Comment